[bangla_day] [english_date] [bangla_date]
ই-পেপার   [bangla_day] [english_date]

৬ ডিসেম্বর কলাপাড়া মুক্ত দিবস
প্রকাশ: 5 December, 2018, 6:03 am |
অনলাইন সংস্করণ

৬ ডিসেম্বর কলাপাড়া মুক্ত দিবস

কলাপাড়া প্রতিনিধি ।।
আজ ৬ ডিসেম্বর পটুয়াখালীর কলাপাড়া মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে পাকহানাদার বাহিনীর কবল থেকে সমুদ্র তীরবর্তী কলাপাড়াকে শত্রুমুক্ত করেন অকুতোভয় মুক্তিযোদ্ধারা। পাকিস্তানি শত্রুদের কবল থেকে মুক্ত করতে সেদিন ৬ ঘণ্টা যুদ্ধ করেণ মুক্তিযোদ্ধারা।

কলাপাড়া থানা দখল করে মুক্তিযোদ্ধারা উড়িয়ে দেন স্বাধীন বাংলার আকাশে লাল-সবুজের পতাকা। এই দিনটি কলাপাড়াবাসীর কাছে বিশেষ গুরুত্ব বহন করে আসছে। সেদিন যুদ্ধ পরিচালনার কঠিন দায়িত্ব পালন করেণ ভারতের দেরাদুনে প্রশিক্ষণ নেয়া অসীম সাহসী মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুল্লাহ রানা।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কলাপাড়া থানা কমান্ডার সাবেক ডেপুটি কমান্ডার হাবিবুল্লাহ রানা বলেন, পরিকল্পনা অনুযায়ী ৫ ডিসেম্বর রাত ৮টায় মুক্তিযোদ্ধারা কলাপাড়া থানা আক্রমণ করেন। কমান্ডার রেজাউল করিম বিশ্বাস, ডেপুটি কমান্ডার হাবিবুল্লাহ রানা, এসএম নাজমুল হুদা সালেক, শাহআলম তালুকদার, সাজ্জাদুল ইসলাম বিশ্বাস, আরিফুর রহমান মুকুল খান, সেনাবাহিনীর নায়েক আহম্মেদ আলী, নায়েক আশরাফ আলীসহ আটজন বিএলএফ যোদ্ধা সম্মুখ যুদ্ধে অংশ নেন।

তিঁনি বলেন,‘কলাপাড়া থানায় পাকিস্তানি শত্রু অবস্থান করছিল। থানার তিনদিক থেকে এবং দক্ষিণ দিকে আন্ধারমানিক নদীতে থাকা ‘ভাট্টি’ নামের জাহাজ থেকে একযোগে থানায় আক্রমণ করা হয়। পাকিস্তানিরাও পাল্টা প্রতিরোধ করে। তবে আমাদের সম্মিলিত আক্রমণের কারণে পিছু হটে হানাদার বাহিনী। এ সময় থানায় অবস্থান করা হানাদার বাহিনীর কতিপয় সদস্য পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। শত্রæ মুক্ত হয় কলাপাড়া।

কলাপাড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বদিউর রহমান বন্টিন জোনান, কিলাপাড়া মুক্ত দিবস উপলক্ষ্যে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে আলোচনা সভা, দিনভর বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার ছাড়াও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

Spread the love




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদসমূহ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদকঃ দেলওয়ার হোসেন
নির্বাহী সম্পাদকঃ এস এম মোশারফ হোসেন মিন্টু
বার্তা সম্পাদকঃ
 
মোবাইল- 01711102472
 
Design & Developed by
  কলাপাড়ায় বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মানকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের উপর হামলা,অর্ধশত গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা।।   “পায়রা বন্দরের মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশকে আমরা পরিবহন সেবা দিতে চাই” নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী   পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মঙ্গলবার ৪টি আনলোডার মেশিন যুক্ত হয়েছে।। ৬৩ ভাগ কাজ সম্পন্ন   ঘুরে দাঁড়িয়েছে বন্দর   কলাপাড়ায় জমি অধিগ্রহন না করার দাবিতে কৃষক ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন   ‘পায়রা সমুদ্র বন্দর বানিজ্য সম্ভাবনার নতুন দরজা”-পটুয়াখালী চেম্বার অব কমার্সের শ্লোগান   পায়রা বন্দরে ২০২১ সালের মধ্যে বাস্তবায়ন হবে ২২ হাজার কোটির টাকার মধ্য মেয়াদী প্রকল্প   নতুন পায়রা সমুদ্রবন্দর বাংলাদেশের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ