[bangla_day] [english_date] [bangla_date]
ই-পেপার   [bangla_day] [english_date]

রাজাপুরে ২ মাস ধরে কাটাতারের বেড়ায় এক পরিবার অবরুদ্ধ
প্রকাশ: 10 December, 2018, 11:41 am |
অনলাইন সংস্করণ

রাজাপুরে ২ মাস ধরে কাটাতারের বেড়ায় এক পরিবার অবরুদ্ধ

 

রহিম রেজা, ঝালকাঠি থেকে।।
ঝালকাঠি রাজাপুরের গালুয়া পাকা মসজিদ এলাকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রভাবশালী প্রতিপক্ষরা ২ মাস ধরে কাটাতারের বেড়া দিয়ে রিক্সা চালক জালাল হাওলাদারের পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রাজাপুরের ইউএনও ও থানা পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করেও কোন সুরাহ না পেয়ে রোববার দুপুরে রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবে এসে এসব অভিযোগ করেন জালাল হাওলাদারের শ^াশুড়ি লিলি বেগম। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বাড়ি থেকে বের হওয়ার প্রধান রাস্তায় পিলার পুতে কাটাতারের বেড়া দিয়ে একমাত্র চলাচলের পথটি পুরোপুরি বন্ধ করে ওই পরিবারটিকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। রিক্সা চালক জালাল হাওলাদার ও তার শ^াশুড়ি লিলি বেগম অভিযোগ করে জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে গালুয়া পাকা মসজিদের জমি দাবি করে প্রভাবশালী প্রতিপক্ষ আ’লীগ নেতা মসজিদ কমিটির সভাপতি মায়াজ্জেম মাস্টার ও সেক্রেটারি মহারাজ খান দলবল নিয়ে অক্টোবর মাসের প্রথম দিকে রিক্সাচালক জালালের বাড়ি থেকে বের হওয়ার প্রধান রাস্তায় পিলার পুতে কাটাতারের বেড়া দিয়ে একমাত্র চলাচলের পথটি পুরোপুরি বন্ধ করতে চাইলে জালাল ও তার স্ত্রী হেপি বেগম বাধা দেয়। তখন তাদের লাঞ্ছিত করে নানাভাবে হুমকি দেয়। রিক্সাচালক জালালের শ^াশুড়ি লিলি বেগমের অভিযোগ, ঘটনার দিন রাতে রিক্সাচালক জালালের শ^াশুড়ি লিলি বেগম রাজাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে পরের দিন সকালে দুই পুলিশ গেলে তদন্ত গেলেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি। পরে নিরুপায় হয়ে রিক্সাচালক জালালের শ^াশুড়ি লিলি বেগম ৬ অক্টোবর সকালে ইউএনও আফরোজা বেগমের কাছে অভিযোগ দিলে তিনি গালুয়া ইউনিয়ন ভূমি উপ সহকারি কর্মকর্তা বিজন বিহারী হালদারকে তদন্ত প্রতিবেদন চাইলে নভেম্বর মাসের ২০ তারিখে তদন্ত প্রতিবেদনেও ঘর থেকে বের হওয়ার পথ কাটা তার দিয়ে বন্ধের কথা উল্লেখ করা হলেও অজ্ঞাত কারনে কোন ব্যবস্থা নেয়নি ইউএনও। রিক্সাচালক জালাল হাওলদার জানান, ঘটনার পর থেকে রিক্সাচালক জালালের স্ত্রী হুমকি ও ভয়ে ৪ সন্তান রেখে বাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়িতে গিয়ে অবস্থান নিয়েছে। বর্তমানে স্কুল পড়–য়া শিশু শিক্ষার্থী নিপা (৫ম), তন্নি (২য়) সহ ছোট দুই শিশু নিয়ে মানবেতর জীবনযাবন করে আসছে এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে। পথ বন্ধ থাকায় রাতে তার রিক্সাও বাড়িতে নিতে পারছেন না এবং সামনের পুকুরের পানিও ব্যবহার করতে পারছেন না। এ বিষয়ে রাজাপুর থানার এসআই ইউনুচ মোল্লা জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে উভয় পক্ষকে শালিশ মানিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হলেও তা সফল হয়নি। আর পরে কোন পক্ষই আসেনি। এ বিষয়ে মসজিদ সেক্রেটারি মহারাজ খান জানান, ওই পাশে তাদের কোন জায়গা নেই। তাদের পথ সামনে ওই পাশে না। মসজিদের ইমামের থাকার জন্য ঘর করবো বিধায় ওই পথ কাটাতার ও পিলার দিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ইউএনও আফরোজা বেগম পারুল জানান, মসজিদ কমিটির আপত্তি থাকায় ওই পরিবারটিকে বিকল্প পথ দেয়া হয়েছে। তাতে যদি তারা অনিচ্ছুক বা কোন আপত্তি থাকে তবে সার্ভেয়ার পাঠিয়ে খবর নিয়ে খোজখবর নেয়া হবে এবং চলাচলালের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Spread the love




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদসমূহ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদকঃ দেলওয়ার হোসেন
নির্বাহী সম্পাদকঃ এস এম মোশারফ হোসেন মিন্টু
বার্তা সম্পাদকঃ
 
মোবাইল- 01711102472
 
Design & Developed by
  কলাপাড়ায় বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মানকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের উপর হামলা,অর্ধশত গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা।।   “পায়রা বন্দরের মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশকে আমরা পরিবহন সেবা দিতে চাই” নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী   পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মঙ্গলবার ৪টি আনলোডার মেশিন যুক্ত হয়েছে।। ৬৩ ভাগ কাজ সম্পন্ন   ঘুরে দাঁড়িয়েছে বন্দর   কলাপাড়ায় জমি অধিগ্রহন না করার দাবিতে কৃষক ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন   ‘পায়রা সমুদ্র বন্দর বানিজ্য সম্ভাবনার নতুন দরজা”-পটুয়াখালী চেম্বার অব কমার্সের শ্লোগান   পায়রা বন্দরে ২০২১ সালের মধ্যে বাস্তবায়ন হবে ২২ হাজার কোটির টাকার মধ্য মেয়াদী প্রকল্প   নতুন পায়রা সমুদ্রবন্দর বাংলাদেশের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ