[bangla_day] [english_date] [bangla_date]
ই-পেপার   [bangla_day] [english_date]

বাল্যবিয়ের কারনে ফুলবাড়ীতে ৯৯ ছাত্রী পরীক্ষায় বসছে না
প্রকাশ: 13 November, 2018, 5:39 am |
অনলাইন সংস্করণ

বাল্যবিয়ের কারনে ফুলবাড়ীতে ৯৯ ছাত্রী পরীক্ষায় বসছে না

ফুলবাড়ী প্রতিনিধি।।

চলতি জেএসসি, জেডিসি ও ভোকেশনাল পরীক্ষায় ফুলবাড়ী উপজেলার ৪টি পরীক্ষাকেন্দ্রে ৯৯ জন ছাত্রী অনুপস্থিত রয়েছে। শিক্ষকরা জানিয়েছেন, এদের বেশির ভাগই বাল্যবিবাহের শিকার। তাদের সহপাঠীরা মনের আনন্দে পরীক্ষায় অংশ নিলেও বাল্যবিবাহের কারণে ওইসব কোমলমতি শিক্ষার্থী শিক্ষাজীবন থেকে ছিটকে পড়েছে । উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপারভাইজার আব্দুস সালাম জানান, চলতি জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় উপজেলার ৪টি পরীক্ষাকেন্দ্রে মোট ১৪০ জন শিক্ষার্থী অনুপস্থিত রয়েছে।

এদের মধ্যে ৯৯ জন বালিকা এবং ৪১ জন বালক। অনুসন্ধানে জানা গেছে, ধরলা নদীবেষ্টিত ভারতীয় সীমান্ত ঘেষা ফুলবাড়ী উপজেলায় বাল্যবিবাহের প্রবণতা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সরকারি ও বেসরকারিভাবে ব্যাপক প্রচারণা এবং কোনো কোনে ক্ষেত্রে কঠোর পদক্ষেপ নিলেও থামছে না তার রাহুগ্রাস। গত ৬ই মাসেই শুধু বালারহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও দাসিয়ারছড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৩৩ জন শিশু শিক্ষার্থী বাল্যবিবাহের শিকার হয়েছে বলে প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে।

আফিনা, মৌসুমী, হাসনা মুছুল্লিপাড়া বালিকা দাখিল মাদরাসা, শাহিনা, শাহনাজ পারভীন ফুলবাড়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় আতিকা খাতুন দাসিয়ারছড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, রুজিনা, সেলিনা, মোকছিদা খাতুন বালারহাট বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্থী।

ফুলবাড়ী জছিমিয়া মডেল সরকারি উচ্চবিদ্যালয়, ফুলবাড়ী বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, শিমুলবাড়ী মিয়াপাড়া নাজিম উদ্দিন উচ্চবিদ্যালয় ও শাহবাজার এএইচ ফাজিল মাদরাসা পরীক্ষাকেন্দ্রে তাদের পরীক্ষায় অংশ নেয়ার কথা। কিন্তু প্রবেশপত্র প্রতিষ্ঠানের টেবিলে পড়ে থাকলেও পরীক্ষার্থীর খোঁজ রাখেনি কেউ। পরীক্ষা কক্ষের বেঞ্চে তাদের রোল বসানো থাকলেও এদের অধিকাংশই রয়েছে স্বামীর সংসারে।

উপজেলার কৃষ্ণানন্দ বকসী গ্রামের জাবেদ আলী, কুরুষা ফেরুষা গ্রামের খলিলুর রহমান, পূর্ব-ফুলমতি গ্রামের মোকলেছ আলী জানান, তাদের মেয়ে জেএসসি পরীক্ষার্থী। জামাই ভালো পেয়েছেন, তাই বিয়ে দিয়ে দিয়েছেন। ফুলবাড়ী জছি মিঞা সরকারি মডেল উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্র সচিব আবেদ আলী খন্দকার জানান, তার কেন্দ্রে ৪৬ শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়নি। হয়তোবা তারা স্বামীর সংসার করছে।

শিমুলবাড়ী মিয়াপাড়া নাজিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র সচিব জামাল উদ্দিন বিএসসি বলেন, এবারের জেএসসি পরীক্ষায় আমার কেন্দ্রে ২১ জন মেয়ে পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত রয়েছে। শুনেছি এদের সবার বিয়ে হয়ে গেছে।

ইউএনও মোছা. মাছুমা আরেফিন জানান, অভিভাবকদের সচেতনতা না থাকায় বাল্যবিবাহ হয়।

Spread the love




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদসমূহ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদকঃ দেলওয়ার হোসেন
নির্বাহী সম্পাদকঃ এস এম মোশারফ হোসেন মিন্টু
বার্তা সম্পাদকঃ
 
মোবাইল- 01711102472
 
Design & Developed by
  কলাপাড়ায় বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মানকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের উপর হামলা,অর্ধশত গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা।।   “পায়রা বন্দরের মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশকে আমরা পরিবহন সেবা দিতে চাই” নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী   পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মঙ্গলবার ৪টি আনলোডার মেশিন যুক্ত হয়েছে।। ৬৩ ভাগ কাজ সম্পন্ন   ঘুরে দাঁড়িয়েছে বন্দর   কলাপাড়ায় জমি অধিগ্রহন না করার দাবিতে কৃষক ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন   ‘পায়রা সমুদ্র বন্দর বানিজ্য সম্ভাবনার নতুন দরজা”-পটুয়াখালী চেম্বার অব কমার্সের শ্লোগান   পায়রা বন্দরে ২০২১ সালের মধ্যে বাস্তবায়ন হবে ২২ হাজার কোটির টাকার মধ্য মেয়াদী প্রকল্প   নতুন পায়রা সমুদ্রবন্দর বাংলাদেশের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ