[bangla_day] [english_date] [bangla_date]
ই-পেপার   [bangla_day] [english_date]

বরগুনায় আছিয়া-এন্তাজ ফাউন্ডেশনের উদ্বোধন
প্রকাশ: 12 October, 2018, 2:18 pm |
অনলাইন সংস্করণ

বরগুনায় আছিয়া-এন্তাজ ফাউন্ডেশনের উদ্বোধন

বরগুনা প্রতিনিধি।।
নিরক্ষরতা দুরীকরণ ও শিক্ষা সম্প্রসারণ,স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়ন,দক্ষ জনগোষ্ঠী গড়ে তোলা, দারিদ্র বিমোচন, ও সামাজিক সচেতনাতা বৃদ্ধির লক্ষে বরগুনায় উদ্বোধন কর হয়েছে আছিয়া-এন্তাজ ফাউন্ডেশন নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী-সমাজকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠানের। শুক্রবার সকালে প্রতিষ্ঠানটির উদ্বোধন করেন পটুয়াখালী বিঞ্জান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড.মো: হারুনর রশিদ।
বিশিষ্ট কৃষি বিঞ্জানী ড.মো: খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ মাজেদা বেগম মুকুল ,শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন,বরগুনার পুলিশ সুপার মো:মারুফ হোসেন,শিক্ষাবিদ মো:ফজলুল করিম,সাবেক যুগ্মসচিব মো: আবদুস সোবাহান,ডা,ধীরেন সর্দার,শিক্ষক তপন কুমার বাগল,সাংবাদিক চিত্তরঞ্জন শীল।ধন্যবাদ ঞ্জাপন করেন প্রকৌশলী মো: আলতাফ হোসেন।
আয়োজকরা সভায় জানান,বরগুনার আছিয়া আহাম্মেদ ছিলেন একজন রতœগর্ভা মা। ১৯৬৫ সালে প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড়ে তিনি তার স্বামীকে হারান। পিতৃ- মাতৃহীন মায়ের স্বামী ছাড়া আর সহায় কেউ ছিলেন না।স্বামী হারিযে যাবার পর পাঁচটি অনাথ সান্তানকে নিয়ে অথৈ সাগরে ভাসার মত বেঁচে ছিলেন তিনি। কিন্তু তিনি ৫ টি সন্তানকেই মানুষের মত মানুষ করেছেন।এর মধ্যে কেউ কৃষিবিদ, শিক্ষাবিদ,জেলা ও দায়রা জজ,চিকিৎসক যারা নিজ নিজ ক্ষেত্রে প্রথিতযশা। যার ফলে ২০০৫ সালে তিনি জাতীয় পর্যায় রতœগর্ভা মা এবং ১০১২ সালে বরগুনা জেলা প্রশাসক কতৃক বিশেষ সম্মানে ভুষিত হন।
অন্যদিকে ডা.এন্তাজ আহাম্মেদ ছিলেন এলাকার একজন সমাজসেবী। শিক্ষক,চিকিৎসক হিসেবে তিনি বরগুনার মানুষকে সেবা দিয়েছেন।তাছাড়া বরগুনাকে মহকুমায় রুপান্তর করতে তিনি ছিলেন একজন সংগঠক। দু:খের বিষয় ১৯৬৫ সালের ১৩ এপ্রিল প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড়ে ৫ টি শিশু সন্তান রেখে তিনি হারিয়ে যান।বহু খোজাখুজি করেও তাকে আর পাওয়া যাযনি।
আয়োজকরা আরো জানান,আছিয়া-এন্তাজ ফাউন্ডেশন উপর্যুক্ত বিষয় নিয়ে এলাকায় কাজ করবে। তবে প্রতিষ্ঠানটি কোন অর্থ লগ্নিকারী সংগঠন হবেনা।

Spread the love




সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদসমূহ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদকঃ দেলওয়ার হোসেন
নির্বাহী সম্পাদকঃ এস এম মোশারফ হোসেন মিন্টু
বার্তা সম্পাদকঃ
 
মোবাইল- 01711102472
 
Design & Developed by
  কলাপাড়ায় বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মানকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের উপর হামলা,অর্ধশত গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা।।   “পায়রা বন্দরের মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশকে আমরা পরিবহন সেবা দিতে চাই” নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী   পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মঙ্গলবার ৪টি আনলোডার মেশিন যুক্ত হয়েছে।। ৬৩ ভাগ কাজ সম্পন্ন   ঘুরে দাঁড়িয়েছে বন্দর   কলাপাড়ায় জমি অধিগ্রহন না করার দাবিতে কৃষক ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন   ‘পায়রা সমুদ্র বন্দর বানিজ্য সম্ভাবনার নতুন দরজা”-পটুয়াখালী চেম্বার অব কমার্সের শ্লোগান   পায়রা বন্দরে ২০২১ সালের মধ্যে বাস্তবায়ন হবে ২২ হাজার কোটির টাকার মধ্য মেয়াদী প্রকল্প   নতুন পায়রা সমুদ্রবন্দর বাংলাদেশের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ