[bangla_day] [english_date] [bangla_date]
ই-পেপার   [bangla_day] [english_date]

পটুয়াখালী-৪ আসনে “জনতার ইশতেহারে ১২ দফা জনদাবী” নিয়ে সংবাদ সম্মেলন
প্রকাশ: 14 December, 2018, 3:55 am |
অনলাইন সংস্করণ

পটুয়াখালী-৪ আসনে “জনতার ইশতেহারে ১২ দফা জনদাবী” নিয়ে সংবাদ সম্মেলন

কলাপাড়া প্রতিনিধি।।
পটুয়াখালী-৪ আসনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের কাছে তৃনমূল পর্যায়ের জনগনের দাবী সম্বলিত ‘জনতার ইশতেহারে জনদাবী’ শীর্ষক ১২ দফা দাবি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে উপজেলার পাঁচটি সংগঠন।
বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় কলাপাড়া প্রেসক্লাব মিলনায়তন অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেণ গণ গবেষনা দলের সভাপতি হাওয়া বেগম। উপজেলার রিফ্লেকশন একশন দল, উপকূলীয় জনকল্যান সংঘ, কৃষকমৈত্রী, গণগবেষণা দল ও চম্পাপুর যুব উন্নয়ন ক্লাব, বে-সরকারি উন্নয়ন সংস্থা আভাস ও একশনএইড বাংলাদেশ এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে।
লিখিত বক্তব্যে হাওয়া বেগম বলেন, কলাপাড়ায় অর্থনৈতিক উন্নয়নে পাল্টে যাচ্ছে মানুষের ভাগ্য। কিন্তু এখনও মানুষের তৈরি বহুবিধ সমস্যা ও সরকারি সুযোগ সুবিধা কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর কারণে তৃনমূলের মানুষ বঞ্চিত হচ্ছে। আগামী নির্বাচনে যিনি বিজয়ী হবেন মানুষের অধিকার আদায়ে তিঁনি কাজ করবেন এবং সমস্যা সমাধানে উদ্যোগী হবেন এ আশা করে ১২ দফা দাবি উপস্থাপন করেন।
তাঁদের দাবিগুলো হলো, কৃষি জমির মধ্যে যে খালগুলো আছে তা মৌজা নকশা অনুযায়ী খাল পুনরুদ্ধার, খনন এবং অবৈধভাবে দখলদার কবল থেকে খাল গুলো উদ্ধার করা। ভেঙ্গে যাওয়া বেড়ি বাঁধের দ্রুত, শক্ত এবং দীর্ঘস্থায়ী বাঁধ নিমার্ণের মাধ্যমে কৃষি জমিতে লবন পানির প্রবেশ ঠেকাতে জনপ্রতিনিধিদের জরুরি পদক্ষেপ গ্রহন। বেড়িবাঁধ নির্মানের ক্ষেত্রে স্থানীয় সরকারকে সম্পৃক্ত করতে হবে। বোরো মৌসুমে কৃষদের স্বার্থে স্লুইজ ও খাল এবং কালভার্টের মুখে জাল ফেলে অবৈধ মাছ শিকারীদের এ সকল স্থানে মাছ শিকার বন্ধ করতে হবে এবং কালভার্টের মুখে বাঁধ দিয়ে মিঠাপানি সংরক্ষনের জন্য সরকারী বরাদ্ধ নিশ্চিত করতে হবে। প্রতিটি স্লুইজ ও কালভার্ট রক্ষণাবেক্ষণের জন্য খালাসী নিয়োগ, আগাম ও লবন সহিষ্ণু জাতের কৃষিবীজ, কৃষি-উপকরন সকল কৃষকের চাহিদা অনুযায়ী সরকারিভাবে সহায়তা দিতে হবে। ইকোনমিক জোনে (তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র ও পায়রা সমুদ্র বন্দর) যাদের ভূমি অধিগ্রহন করা হয়েছে তাদেরকে কোন খাতে কত মূল্য সরকার নির্ধারণ করে ওই এলাকায় জনসমুক্ষে দৃশ্যমানস্থানে মূল্য তালিকা প্রকাশ করতে হবে। ইকোনমিক জোনে (তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র ও পায়রা সামুদ্রিক বন্দর) চাকুরী প্রার্থী বেকার জনগোষ্ঠির কর্মসংস্থানের দক্ষতা উন্নয়নের জন্য এই উপজেলায় সরকারী টেকনিক্যাল প্রতিষ্ঠান (আইটি, ট্রেড) স্থাপন করা। কলাপাড়া উপজেলায় নারী ও শিশু নির্যাতনের হার কমাতে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে সল্প সময়ে শিশু হত্যা, নারী হত্যা, নারী ও শিশু নির্যাতন বিচার করে প্রকৃত অপরাধীদের সাজা প্রদান এবং গুরুত্বপূর্ন স্থানে পুলিশ ক্যাম্প বসাতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদের সামর্থ বৃদ্ধির জন্য জাতীয় বাজেটের (রাজস্বের) বড় অংশ ইউনিয়ন পরিষদকে দিতে হবে। শিক্ষাখাতে বাজেটের বরাদ্ধ বাড়াতে হবে এবং কলাপাড়া উপজেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সংখ্যা বাড়াতে হবে। ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাান কেন্দ্র স্থাপন এবং সেবা কেন্দ্রে নারী ও কিশোরীদের জন্য মহিলা ডাক্তারের ব্যবস্থা রাখতে হবে। সিটিজেন চার্টারসহ ঔষধের তালিকা সেবা কেন্দ্রে প্রদর্শন করে রাখতে হবে। গ্রামীন জনপদের রাস্তা পাকাকরণ ও উন্নয়নকাজে দূর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, দলপ্রীতি যেন না হতে পারে সেজন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়।
উপকূলীয় জন কল্যান সঙ্গের সভাপতি মো. জয়নাল আবেদীন, কোষাধ্যক্ষ সবিতা রানী, উপজেলা রিফ্লেকশন একশন দলের সভাপতি-রিজিয়া বেগম, সদস্য-সুগন্ধা রানী, উপজেলা কৃষক মৈত্রী সংগঠনের কোষাধ্যক্ষ মর্জিনা বেগম, যুব উন্নয়ন ক্লাবের সাধারন সম্পাদক ইশিতা আক্তার প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

Spread the love




সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদসমূহ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদকঃ দেলওয়ার হোসেন
নির্বাহী সম্পাদকঃ এস এম মোশারফ হোসেন মিন্টু
বার্তা সম্পাদকঃ
 
মোবাইল- 01711102472
 
Design & Developed by
  কলাপাড়ায় বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মানকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের উপর হামলা,অর্ধশত গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা।।   “পায়রা বন্দরের মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশকে আমরা পরিবহন সেবা দিতে চাই” নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী   পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মঙ্গলবার ৪টি আনলোডার মেশিন যুক্ত হয়েছে।। ৬৩ ভাগ কাজ সম্পন্ন   ঘুরে দাঁড়িয়েছে বন্দর   কলাপাড়ায় জমি অধিগ্রহন না করার দাবিতে কৃষক ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন   ‘পায়রা সমুদ্র বন্দর বানিজ্য সম্ভাবনার নতুন দরজা”-পটুয়াখালী চেম্বার অব কমার্সের শ্লোগান   পায়রা বন্দরে ২০২১ সালের মধ্যে বাস্তবায়ন হবে ২২ হাজার কোটির টাকার মধ্য মেয়াদী প্রকল্প   নতুন পায়রা সমুদ্রবন্দর বাংলাদেশের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ