[bangla_day] [english_date] [bangla_date]
ই-পেপার   [bangla_day] [english_date]

কলাপাড়ায় স্কুল মাঠে হাট,দুটি স্কুলে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত
প্রকাশ: 12 November, 2018, 8:17 am |
অনলাইন সংস্করণ

কলাপাড়ায় স্কুল মাঠে হাট,দুটি স্কুলে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত

মিলন কর্মকার রাজু, কলাপাড়া(পটুয়াখালী)।।
পটুয়াখালীর কলাপাড়ার টিয়াখালী কে আই ইসলাম মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও সংলগ্ন বেরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বসছে সাপ্তাহিক হাট। তাই বেলা একটার মধ্যেই ছুটি দিতে হচ্ছে দুইটি স্কুল। গত দেড় বছর ধরে দুইটি বিদ্যালয় মাঠে প্রতি বৃহস্পতিবার এই হাট বসার কারণে বিদ্যালয় দুটির শিক্ষা কাযক্রম ব্যহত ও স্কুল মাঠের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে।
গত বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া একটায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় টিয়াখালী কে আই ইসলাম মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও সংলগ্ন বেরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দুটি ছুটি হয়ে গেছে। মাঠে কাঁচাবাজার বিভিন্ন দোকানীরা তাদের মালামাল বিক্রির জন্য সাজিয়ে রেখেছে। এ স্কুল মাঠে গরু-ছাগল থেকে শুরু করে সব কিছু¦ই বিক্রি হয়। তাই হাটের বিক্রেতাদের সুবিধার্থে দুটি বিদ্যালয়ই বেলা একটার পর ছুটি দিতে হচ্ছে।
হাটে কাচা মালামাল বিক্রি করতে আসা ফারুক হাওলাদার বলেন, তারা বেলা ১২টার দিকে মালামাল নিয়ে এসেছেন। দুপুর দুইটার পর বাজারে বিক্রি শুরু হয়। অপর ব্যবসায়ী আব্দুল কুদ্দুস জানান, গত দেড় বছর ধরে তারা এই হাটে সক ধরণের মালামাল বিক্রির জন্য নিয়ে আসছেন। টিয়াখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের মানুষই এ হাটের ক্রেতা। হাটে টল ঘর না থাকায় বর্ষা মেীসুমে স্কুলের বাড়ান্দায় বসে তারা মালামাল বিক্রি করেন।


বে-সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কাজী মিজানুর রহমান বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুর দুইটার মধ্যে তিনটি বিষয়ে ক্লাস শেষে স্কুল ছুটি দিয়ে দেন। গ্রামবাসীর সুবিধার্থে তারা শিক্ষার্থীদের ছুটি দিচ্ছেন বলে জানান। তবে গত বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) বেলা সোয়া একটায় গিয়ে দেখা স্কুল বন্ধ দেখা যায় এ প্রশ্ন করলে তিঁনি বলেন ওইদিন একটু আগেই ছুটি দিয়ে দেয়া হয়েছে।
টিয়াখালী কে আই ইসলাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক মো. শওকত হোসেন সেলিম বলেন, মূল হাটটি নদী ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে যাওয়ায় স্থানীয়রা স্কুল মাঠে হাট বসিয়েছে। এতে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার ক্ষতি হলেও গ্রামবাসীর সুবিধার্থে তারা হাটের দিন একটু আগেই স্কুল ছুটি দিয়ে দেন। তবে বর্ষা মেীসুমে স্কুলের বাড়ান্দায়ও দোকানীরা মালামাল বিক্রির জন্য বসে পড়ে। তখন সমস্যা হয়।
দুটি বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী জানায়, স্কুল মাঠে হাট বসার কারনে সারা মাঠ জুড়ে গরু-ছাগলের মলমূত্র ও ময়লার স্তুপ জমে থাকে। এ কারণে শনিবার স্কুলে এসে তাদের বিপাকে পড়তে হয়। বাধ্য হয়ে নিজ উদ্যোগে তাদের স্কুল পরিস্কার করতে হচ্ছে।
একাধিক অভিভাবক জানান, স্কুল মাঠে হাট বসায় তাদের কেনাকাটায় সুবিধা হলেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে হাট বসানো ঠিক না। এতে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার ক্ষতি হয়। হাটের ময়লা আবর্জনার কারনে রোগব্যধি হতে পারে। এ হাটটি অন্যত্র সরিয়ে নেয়া উচিত।
কলাপাড়া প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের টিয়াখালীর ইউনিয়নের এটিও রফিকুল ইসলাম আরিফ গত ফেব্রæয়ারি মাসে কলাপাড়ায় বদলী হয়ে আসলেও গত নয় মাসেও টিয়াখালী কে আই প্রাথমিক বিদ্যারয়টি ভিজিট করেননি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বেসরকারি স্কুল হওয়ায় ওই স্কুলে তার যাওয়া হয়নি। তবে স্কুল মাঠে সাপ্তাহিক হাট বসানো ঠিক না। বিষয়টি জেনে পদক্ষেপ নিবেন বলে জানান।
কলাপাড়া উপজেলা একাডেমিক সুপারভাজার ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (চলতি দায়িত্ব) মনিরুজ্জামান খান জানান, স্কুল মাঠে হাট বসার বিষয়টি অবগত নন। তিনি বিষয়টি জেনে হাটটি অন্যত্র সরানোর উদ্যোগ নিবেন বলে জানান।

Spread the love




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদসমূহ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদকঃ দেলওয়ার হোসেন
নির্বাহী সম্পাদকঃ এস এম মোশারফ হোসেন মিন্টু
বার্তা সম্পাদকঃ
 
মোবাইল- 01711102472
 
Design & Developed by
  কলাপাড়ায় বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মানকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের উপর হামলা,অর্ধশত গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা।।   “পায়রা বন্দরের মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশকে আমরা পরিবহন সেবা দিতে চাই” নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী   পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মঙ্গলবার ৪টি আনলোডার মেশিন যুক্ত হয়েছে।। ৬৩ ভাগ কাজ সম্পন্ন   ঘুরে দাঁড়িয়েছে বন্দর   কলাপাড়ায় জমি অধিগ্রহন না করার দাবিতে কৃষক ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন   ‘পায়রা সমুদ্র বন্দর বানিজ্য সম্ভাবনার নতুন দরজা”-পটুয়াখালী চেম্বার অব কমার্সের শ্লোগান   পায়রা বন্দরে ২০২১ সালের মধ্যে বাস্তবায়ন হবে ২২ হাজার কোটির টাকার মধ্য মেয়াদী প্রকল্প   নতুন পায়রা সমুদ্রবন্দর বাংলাদেশের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ